ভাই মানে হৃদয়ে বন্ধন ভাই মানে রক্তের স্পন্দন”

প্রকাশিত: ২:৪৮ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০২১

মোঃ নাসির উদ্দিন,স্টাফ রিপোর্টারঃ ভাইদের কষ্ট গুলো বুকের ভিতরে আটকে রাখতে হয়।
বুকের ভিতর কষ্ট গুলোকে পুরিয়ে দিতে হয়।
কষ্টগুলো প্রকাশ করতে নেই
ভাইদের নিজের যৌবন ফুরিয়ে গেলে চুল দাঁড়ি পেকে গেলেও বিয়ের বয়স হয় না।
যতদিন না আদরের বোনটাকে ভালো জায়গায় বিয়ে দিতে পারছে। ভাইদের কখনো বোনদের প্রতি দায়িত্ব শিখাতে হয় না। ভাইদের একটা চোখ সবসময় সজাগ থাকে। কখন বোনের কি প্রয়োজন। রাস্তায় বোনকে কেউ বিরক্ত করছে নাকি ঠিকঠাক মত কলেজে যাচ্ছে নাকি। খেয়ার করলে দেখবেন বোন কে কোন বখাটে ছেলে বিরক্ত করলে ভাইদের মাথা ঠিক থাকেনা। সাথে সাথেই এটার প্রতিবাদ করে। এটা কোন মাস্তানি নয়। এটা নিজের বোনের প্রতি ভাই এর ভালোবাসা। একটা বোনকে যখন অন্য কারো হাতে তুলে দেয়। ঠিক তখন একটা ভাইয়ের হৃদপিণ্ডটা বের করে অন্য কারো হাতে তুলে দেওয়ার মতো কষ্ট হয়। একেকটা বোন একেকটা ভাই এর হৃদপিণ্ড। সময়ের সাথে সাথে হয়তো ভাইয়ের ছেলে মেয়েরা তাদের ফুফুকে ভুলে যায়। কিন্তু ভাই যতদিন বেঁচে থাকে তার বোনকে ভুলে না। ভাই বোনের ভালোবাসা সম্পর্ক বেঁচে থাকে আজীবন।

ছবিঃ-সংগৃহীত